শনিবার, ১৬-ডিসেম্বর ২০১৭, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন
  • অর্থনীতি
  • »
  • সংকট মেটাতে ফারমার্স ব্যাংককে ৩ মাস সময় দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

সংকট মেটাতে ফারমার্স ব্যাংককে ৩ মাস সময় দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

sheershanews24.com

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০১৭ ০৫:৩১ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: সংকট মেটাতে তিন মাস সময় পেল ফারমার্স ব্যাংক। বুধবার ব্যাংকটির নতুন পর্ষদের সঙ্গে এক বৈঠকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে এই সময় দেওয়া হয়।
ফারমার্স ব্যাংকের নতুন পর্ষদের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আতাহার উদ্দিন বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
সাম্প্রতিক সময়ে ঋণে ব্যাপক অনিয়মের কারণে ফারমার্স ব্যাংক বড় ধরনের তারল্য সংকটে পড়ে। এরপর বাংলাদেশ ব্যাংক নতুন এ বেসরকারি ব্যাংকের সংকট নিরসনে জোরালো উদ্যোগ নেয়।
আমানতকারীদের আস্থা ফেরাতে গত সপ্তাহে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীরসহ তিন পরিচালককে ডেকে নিয়ে মৌখিকভাবে পদত্যাগ করতে বলা হয়। প্রথমে তারা পদত্যাগে রাজি হননি। তবে নিজ থেকে সরে না দাঁড়ালে শিগগিরই তাদের অপসারণ করার বিষয়টি জানার পর পদত্যাগ করেন তারা।
মহীউদ্দীন খান আলমগীর ফারমার্স ব্যাংক ছেড়ে যাওয়ার একদিনের মাথায় মঙ্গলবার নতুন পর্ষদকে ডাকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংকটিকে টিকিয়ে রাখতে দিকনির্দেশনা দেওয়ার লক্ষ্যে বুধবার বিকেলে পরিচালনা পর্ষদের সব সদস্যের সঙ্গে বৈঠক করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
বাংলাদেশ ব্যাংকের হস্তক্ষেপে সোমবার ফারমার্স ব্যাংক ছাড়া সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সরকারি হিসাব-সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মহীউদ্দীন খান আলমগীর ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ ও নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। একই দিন ব্যাংকটির অডিট কমিটির চেয়ারম্যান মাহাবুবুল হক চিশতীও পদত্যাগ করেন। আরেক পরিচালক ড. মোহাম্মদ আতাহার উদ্দিন শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে দাঁড়ান। এরপর বৈঠকে ব্যাংকের পরিচালক মোহাম্মদ মাসুদকে চেয়ারম্যান ও মারুফ আলমকে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়।
সোমবারের বৈঠক থেকে ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের নির্বাহী, অডিট ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। নতুন করে নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন ব্যাংকের পরিচালক সাঈদ আহমেদ। তানভীর মারজান হুদাকে অডিট কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে। আর ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন শরিফ চৌধুরী।
এর আগে রোববার ব্যাংকের এমডি একেএম শামীমকে কেন অপসারণ করা হবে না জানতে চেয়ে চিঠি দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অমান্য করে ঋণ বিতরণ এবং তারল্য সংকট কাটিয়ে উঠতে ব্যর্থ হওয়ায় এ নোটিশ দেওয়া হয়।
শীর্ষনিউজ২৪ডটকম/এনএমএম