শুক্রবার, ২০-অক্টোবর ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ন
  • বিনোদন
  • »
  • বলিউডে যারা রেস্তোরাঁর মালিক

বলিউডে যারা রেস্তোরাঁর মালিক

sheershanews24.com

প্রকাশ : ১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০১:১২ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক: বলিউডের তারকাদের মধ্যে অনেকেই রেস্তোরাঁ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। আমাদের দেশের অনেক তারকারও আছে নিজস্ব রেস্তোরাঁ। তবে এত কিছু থাকতে এই ব্যবসা কেন তারকাদের এত বেশি টানে? আসুন জেনে নেই বলিউড তারকাদের রেস্তোরাঁর খবর।

সুনীল শেঠি
অভিনয়ে আসার আগে থেকেই সুনীল শেঠি রেস্তোরাঁ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তখন এটি ছিল তাঁর খণ্ডকালীন পেশা। তবে বলিউডে বেশি সুবিধা করতে না পেরে পরে পুরো মনোযোগ এই ব্যবসাতেই দিয়েছেন সুনীল। মুম্বাইয়ের খার এলাকায় এই তারকার নিজের একটি রেস্তোরাঁ আছে। নাম ‘এইচটু ও’। বিলাসবহুল এই রেস্তোরাঁর অন্দরসজ্জা অবশ্য যথা সম্ভব ছিমছাম রাখার চেষ্টা করেছেন সুনীল। এখানকার ‘আইস টি’ নাকি সবচেয়ে ভালো।

শিল্পা শেঠি
ছিপছিপে গড়নের শিল্পা শেঠিকে দেখে অনেকেই মনে করতে পারেন তিনি কম খান। এই নায়িকা পরিমাণ মতো খান, এ কথা সত্যি। কিন্তু শিল্পা যে একজন ভোজন রসিক তা হয়তো অনেকেই জানেন না। সুস্বাদু না লাগলে কোনো পদ পাতে তোলেন না এই তারকা। নিজে রাঁধতেও ভালোবাসেন। এ জন্যই তাঁর জন্য রেস্তোরাঁর ব্যবসা ছিল খুব সহজ। মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় ‘রয়্যালটি ক্লাব’ নামের একটি রেস্তোরাঁ আছে তাঁর। বলিউড তারকাদের আড্ডায় সব সময় মুখর থাকে এই রেস্তোরাঁ।

ববি দেওল
‘সামপ্লেস এলস’ নামে মুম্বাইয়ে একটি রেস্তোরাঁ খুলেছেন ববি দেওল। তারকা সন্তান হলেও বলিউডে বরাবরই তিনি ফ্লপ নায়ক। অভিনয়ের ‘অ’ পারতেন না বলে শেষমেশ নায়ক হওয়ার হাল ছেড়ে দিয়েছেন। তবে ব্যবসা তিনি খুব ভালোই বোঝেন। অভিনব পরিবেশনের পাশাপাশি, সুস্বাদু খাবার ও রকমারি পানীয় ববি দেওলের রেস্তোরাঁর কদর বাড়িয়ে দিয়েছে কয়েক গুণ।

চাংকি পাণ্ডে
তারকা রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের তালিকা দেখে মনে হচ্ছে বলিউডে যারা সফল হতে পারেননি, তাঁরাই এসেছেন রেস্তোরাঁ ব্যবসায়। এই দলে আছেন চাংকি পাণ্ডেও। তিনি অবশ্য তরুণ বয়সে কয়েকটি হিট ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। বলা হয়, তাঁর সমসাময়িক তারকাদের মধ্যে তিনি-ই প্রথম রেস্তোরাঁ ব্যবসায় নামেন। ‘দ্য এলবো রুম’ নামে তাঁর রেস্তোরাঁটি সাজিয়েছেন ঘরোয়া আঙ্গিকে। সেখানে পাওয়া যায় প্রকৃতির আমেজও। জাপানি খাবারের জন্য বিখ্যাত এটি। প্রতি মঙ্গলবার চাংকি তাঁর গ্রাহকদের জন্য বিশেষ অফার রাখেন এই রেস্তোরাঁয়।

পারিজাদ জোরাবিয়ান
হাতে গোনা কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছেন এই তারকা। ‘জগারস পার্ক’ আর ‘জাস্ট ম্যারিড’ ছবি দিয়ে হয়তো চিনতে পারবেন এই তারকাকে। বলিউডে সুপরিচিত না হলেও, তাঁর রেস্তোরাঁ ‘গন্ডোলা’র ব্যবসা কিন্তু বেশ রমরমা। মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় পালি হিলের কাছের এই রেস্তোরাঁর অন্দর সজ্জাও খুব সুন্দর।

সুস্মিতা সেন
সাবেক ‘মিস ইউনিভার্স’ সুস্মিতা সেনেরও আছে নিজের রেস্তোরাঁ। বাঙালি এই নায়িকার রেস্তোরাঁর নামটিও বেশ মজার। তাঁর ‘বাঙালি মাসির কিচেন’ নামের রেস্তোরাঁয় পাওয়া যায় সব ধরনের বাঙালি পদ। মুম্বাইয়ের এই রেস্তোরাঁ চিংড়ির মালাই কারি, ডাল ও ফুলকো লুচির জন্য জনপ্রিয়।

অর্জুন রামপাল
অর্জুন রামপালের রেস্তোরাঁ ‘ল্যাপ দ্য লাউঞ্জ’-এ ঢুকলে মনে হতে পারে কোনো ধনী লোকের বসার ঘরে ঢুকে পরেছেন। ঝাঁ চকচকে এই রেস্তোরাঁটি ভারতের দিল্লিতে অবস্থিত। পার্টি প্রিয়দের কাছে এই রেস্তোরাঁটি দারুণ জনপ্রিয়। আলাদা ডিস্কো ক্লাবও আছে এখানে।