বৃহস্পতিবার, ১৪-ডিসেম্বর ২০১৭, ০৪:১৭ অপরাহ্ন

‘চালের বাজার ফের অস্থিতিশীল হওয়ার ইঙ্গিত’

sheershanews24.com

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর, ২০১৭ ০৮:০৪ অপরাহ্ন

শীর্ষ নিউজ,বগুড়া: দেশের চালের বাজার ফের অস্থিতিশীল হতে পারে এমন ইঙ্গিত পাওয়া গেছে বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাস্কিং মিল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কেএম লায়েক আলী’র বক্তব্যে।
আজ মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (আরডিএ) অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সাশ্রয়ী স্বাস্থ্য সম্মত ও নিরাপদ ধান সেদ্ধকরণ পদ্ধতির (নবান্ন পদ্ধতি) প্রসার কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে এমন ইঙ্গিত দেন।
অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাস্কিং মিল অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কেএম লায়েক আলী জানান, চলতি রোপা-আমন মৌসুমের ধান বাজারে আসার পরও দাম কমেনি। বরং ক্রমেই ধানের বাজার ঊর্ধ্বমুখি হয়ে উঠছে।
     
আমনের আশানুরুপ ফলন হয়নি দাবি করে এই ব্যবসায়ী নেতা জানান, বিভিন্ন ধরনের দুর্যোগের কারণে সারাদেশে বিগত বছরের চেয়ে আমনের উৎপাদন এ বছর কমপক্ষে ২০-২৫ লাখ মেট্রিকটন কম হবে। এতে স্বভাবতই দেশে ধানের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। যার সরাসরি প্রভাব পড়বে চালের বাজারে। ইতোমধ্যেই সেটা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।  
     
কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বর্তমান বাজারে নতুন ধানের দাম ক্রমেই বেড়ে চলছে। ব্যবসায়ীরা বাড়তি দামে ধান কিনে চালে পর্তা করতে পারছেন না। আবার ক্রেতার অভাবে চাহিদামত লোকসান দিয়েও উৎপাদিত চাল বিক্রি করতে পারছেন না।
এতে করে অনেক ধান-চাল ব্যবসায়ী ইতোমধ্যেই দেউলিয়া হয়ে পড়েছেন। ব্যাংকসহ বিভিন্ন ধার-দেনায় ব্যবসায়ীদের অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। অসংখ্য মিল চাতাল বন্ধ হয়ে পড়েছে। বেকার হয়ে পড়েছেন হাজারো শ্রমিক।
ব্যবসায়ী নেতা কেএম লায়েক আলী সরকারের সু-দৃষ্টি কামনা করে বলেন, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে প্রায় মাসখানেক আগে ব্যবসায়ীদের আলোচনা হয়। সেখানে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে চলতি মৌসুমে ধান-চাল সংগ্রহ করার ব্যাপারে বেশ কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়। এরমধ্যে চালের দাম প্রতিকেজি ৩৯ টাকা ও ধানের দাম প্রতিকেজি সোয়া ২৪ টাকা মূল্য নির্ধারণ করার পরামর্শ অন্যতম।
তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের এসব পরামর্শ সরকার সু দৃষ্টিতে না নিলে গেলো বছরের মত ধান-চাল সংগ্রহ অভিযান আবারও ব্যর্থ হতে পারে। সেক্ষেত্রে চালের বাজার আবারও অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে বলেও যোগ করেন ব্যবসায়ী নেতা

শীর্ষনিউজ/এসএসআই