শুক্রবার, ২৮-জুলাই ২০১৭, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন
  • রাজনীতি
  • »
  • নিরপেক্ষ সরকারের প্রশ্নে কোনো আপোস নয়: জামায়াত
‘‘নৌমন্ত্রীর বক্তব্য আজগুবি’’| প্রকাশ : ১৬ জুলাই, ২০১৭ ০৮:৪১ অপরাহ্ন

নিরপেক্ষ সরকারের প্রশ্নে কোনো আপোস নয়: জামায়াত

শীর্ষ নিউজ, ঢাকা: বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অধীনে কোনোভাবেই নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছে জামায়াতে ইসলামী।
রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলটির সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান এ মন্তব্য করেন।
বিবৃতিতে ডা. শফিক বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য, অনভিপ্রেত, অযৌক্তিক ও অবাস্তব। তার এ বক্তব্যে আমরা গভীরভাবে বিস্মিত হয়েছি। গোটা জাতি আজ এ ব্যাপারে একমত যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আদৌ সম্ভব নয়। তার সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হলে তাতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনেরই পুনরাবৃত্তি ঘটবে। এ ধরনের প্রহসনের নির্বাচন অনুষ্ঠানের যে কোন উদ্যোগ জাতি ঘৃণার সাথে প্রত্যাখ্যান করবে।
তিনি বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন বিদায়ী নির্বাচন কমিশনের পথেই হাটুক তা জাতি দেখতে চায় না। আমরা বিশ্বাস করি শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে কোনভাবেই অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে না। ইভিএম নির্বাচন ব্যবস্থা পৃথিবীর কোন দেশেই গ্রহণযোগ্য হয়নি। এ ব্যবস্থা সব দেশেই প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। জাতি আশা করেছিল নির্বাচন কমিশনের রোডম্যাপ ঘোষণায় জাতি আশান্বিত হবে। কিন্তু তাদের রোডম্যাপ ঘোষণা জাতিকে হতাশ করেছে।
জামায়াত সেক্রেটারি বলেন, দেশবাসী নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সকল দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায়। এ ব্যাপারে জাতি কোন আপোস করবে না। প্রহসনের নির্বাচনের যে কোন অপপ্রয়াস জাতির কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। জাতি তাদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে চায়।
অপর এক বিবৃতিতে জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান বলেছেন, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান ‘যুবক-যুবতীদের ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করে আইএস বানাচ্ছে জামায়াত’ মর্মে যে কাল্পনিক বক্তব্য প্রদান করেছেন তার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই।
জামায়াতে ইসলামী একটি নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাসী দল। জামায়াত কখনো কোন সন্ত্রাসী কার্যক্রমে বিশ্বাস করে না। বরং দেশের সকল সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে জামায়াত সব সময়ই সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। সুতরাং আইএস এর সাথে জামায়াতের সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই আসে না। শাজাহান খান ইতোপূর্বেও এ ধরনের বহু আজগুবি বক্তব্য প্রদান করেছেন। জামায়াতকে জড়িয়ে অবাঞ্ছিত বক্তব্য প্রদান করা যেন তার মুদ্রাদোষে পরিণত হয়েছে। শাজাহান খানের ঔদ্ধত্যপূর্ণ কর্মকা-ের কারণে নিজ দলের নেতা-কর্মীগণই তাকে দানব আখ্যা দিতে বাধ্য হচ্ছেন। আমি শাজাহান খানকে ভবিষ্যতে এ ধরনের বিভ্রান্ত্রিকর বক্তব্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকার জন্য আহবান  জানাচ্ছি।
 শীর্ষ নিউজ/বিজ্ঞপ্তি/জে